০৭ জুন, ২০২৩, ২৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩০

ফতুল্লায় কিশোর গ্যাংয়ের তান্ডব: জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষনে নাঈম

ফতুল্লা
ফতুল্লায় কিশোর গ্যাংয়ের তান্ডব: জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষনে নাঈম

নিজস্ব প্রতিবেদক :  ফতুল্লায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা নাঈম(১৩) নামের অপর  কিশোরকে কুপিয়ে  রক্তাক্ত জখম করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় আহত কিশোর নাঈমের বাবা  আঃ বারেক গাজী বাদী হয়ে কামরুল(১৬), মুন্না(১৬),দ্বীন ইসলাম(১৭),বছির(১৭) ও বাবু (১৭) সহ পাচ জনের  নাম উল্লেখ্য করে অজ্ঞাতনামা আরো ১০-১২ জনকে আসামী করে  ফতুল্লা মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।


অভিযুক্ত কিশোর গ্যাং সদস্যরা শিয়াচর লালখা এলাখার রতন ওরফে রাখাল রতনের আর্শীবাদপুস্ট বলে জানা যায়।


বর্তমানে ভুক্তভোগী কিশোর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে বলে জানিয়েছে কিশোরটির পরিবার। 



বাদীর লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে জানা যায়  ১২ মে  রাত ৮টার দিকে শিয়াচর গণি হাজী বাড়ীর মসজিদের দক্ষিণ পাশে ফুটবল টুর্ণামেন্টে  খেলা দেখার সময় বসার জায়গাকে কেন্দ্র করে কামরুল ও মুন্নার সাথে  হামলার শিকার মোঃ নাঈমের কথা কাটাকাটি হয়। কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে অভিযুক্ত আসামীরা  খেলার মাঠের পূর্ব পাশ হইতে জোরপূর্বক ধরে গণি হাজা বাড়ীর মসজিদের দক্ষিণ-পূর্ব কোণে নিয়ে যায়। সেখানে নিয়ে গিয়ে নাঈম কে এলোপাথাড়ি ভাবে ছুরিকাঘাত করে রক্তাক্ত জখম করে। এসময় নাঈমের ডাক চিৎকারে স্থানীয় পথচারীরা এগিয়ে এলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। সংবাদ পেয়ে পরিবারের সদস্যরা ঘটনাস্থলে ছুটে এসে নাঈম কে উদ্ধার করে প্রথমে খানপুর ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে নিয়ে যায়।  অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন কর্তব্যরত চিকিৎসকরা। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তাররা বাদীর ছেলেকে দ্রুত আইসিইউতে নিয়ে যায়। 



এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, অভিযোগ পেয়ে গুরুত্ব দিয়ে বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। জড়িতদের গ্রেফতারে চেস্টা করা হচ্ছে বলে তিনি জানান।ফতুল্লায় কিশোর গ্যাংয়ের তান্ডব: জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষনে নাঈম